Videos

Breaking News

দোহারের মৈনট ঘাটে ২০০ পিছ সোনার বার সহ আটক- ৫



নিজস্ব প্রতিনিধি-ঢাকা জেলার দোহার উপজেলার মৈনট ঘাট থেকে ২০০ পিছ স্বর্ন বারসহ ৫ জনকে আটক করেছে র‌্যাব-১১ মুন্সীগঞ্জ বালাশুর ও নারায়নগঞ্জ আদমজীনগর ক্যাম্পের র‌্যাব সদস্যরা।



র‌্যাব সূত্রে জানা যায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শুক্রবার সকাল সাড়ে ছয়টার দিকে দিকে র‌্যাব-১১ নারায়নগঞ্জ আদমজীনগর ক্যাম্পের কমান্ডার মেজর আশিক বিল্লাহ ও মুন্সীগঞ্জ বালাশুর ক্যাম্প কমান্ডার এএসপি মুহিদুল ইসলামের নেতৃত্বে র‌্যাবের একটি দল দোহার উপজেলার মৈনট ঘাটে একটি বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে। এসময় সিএনজি করে মৈনট ঘাটে আসা পাঁচজন যাত্রীকে আটক করে র‌্যাব। সন্দেহজনক তাদের  দেহ ও ব্যাগ তল্লাশি করে ২০০ পিছ সোনার বার এবং নগদ ২৬ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়।

র‌্যাব সূত্রে জানা যায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শুক্রবার সকাল সাড়ে ছয়টার দিকে দিকে র‌্যাব-১১ নারায়নগঞ্জ আদমজীনগর ক্যাম্পের কমান্ডার মেজর আশিক বিল্লাহ ও মুন্সীগঞ্জ বালাশুর ক্যাম্প কমান্ডার এএসপি মুহিদুল ইসলামের নেতৃত্বে র‌্যাবের একটি দল দোহার উপজেলার মৈনট ঘাটে একটি বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে। এসময় সিএনজি করে মৈনট ঘাটে আসা পাঁচজন যাত্রীকে আটক করে র‌্যাব। সন্দেহজনক তাদের  দেহ ও ব্যাগ তল্লাশি করে ২০০ পিছ সোনার বার এবং নগদ ২৬ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়।
2018-09-07.PRIYO-5b92030e9a1f3
র‌্যাব সূত্রে জানা যায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শুক্রবার সকাল সাড়ে ছয়টার দিকে দিকে র‌্যাব-১১ নারায়নগঞ্জ আদমজীনগর ক্যাম্পের কমান্ডার মেজর আশিক বিল্লাহ ও মুন্সীগঞ্জ বালাশুর ক্যাম্প কমান্ডার এএসপি মুহিদুল ইসলামের নেতৃত্বে র‌্যাবের একটি দল দোহার উপজেলার মৈনট ঘাটে একটি বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে। এসময় সিএনজি করে মৈনট ঘাটে আসা পাঁচজন যাত্রীকে আটক করে র‌্যাব। সন্দেহজনক তাদের  দেহ ও ব্যাগ তল্লাশি করে ২০০ পিছ সোনার বার এবং নগদ ২৬ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়।

র‌্যাব সূত্রে জানা যায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শুক্রবার সকাল সাড়ে ছয়টার দিকে দিকে র‌্যাব-১১ নারায়নগঞ্জ আদমজীনগর ক্যাম্পের কমান্ডার মেজর আশিক বিল্লাহ ও মুন্সীগঞ্জ বালাশুর ক্যাম্প কমান্ডার এএসপি মুহিদুল ইসলামের নেতৃত্বে র‌্যাবের একটি দল দোহার উপজেলার মৈনট ঘাটে একটি বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে। এসময় সিএনজি করে মৈনট ঘাটে আসা পাঁচজন যাত্রীকে আটক করে র‌্যাব। সন্দেহজনক তাদের  দেহ ও ব্যাগ তল্লাশি করে ২০০ পিছ সোনার বার এবং নগদ ২৬ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়।

আটককৃতরা হলেন নবাবগঞ্জ উপজেলার গালিমপুর গ্রামের মো. শাহাজাদার ছেলে মো. ফিরোজ (৩৫), শ্রীনগর উপজেলার শিবরামপুর গ্রামের আলেপ খাঁর ছেলে মো. মহসিন (৪৮),একই উপজেলার মদনখালী গ্রামের মৃত ইয়াকুব শেখের ছেলে মো. সিদ্দিক (৪৫), জামাত আলীর ছেলে মো. মিজান (৩৬) এবং একই গ্রামের মো. আমিনুল ইসলাম (৪১)।

র‌্যাব-১১  কমান্ডারদ্বয় জানান, উদ্ধারকৃত সোনার বারের ওজন হবে আনুমানিক ২৫-২৬ কেজি। আটককৃতরা কোন চোরাচালান চক্রের সদস্য কিনা তা জানতে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে তাদের থানায় হস্তান্তর করা হবে।
ধারনা করা হচ্ছে এই  সোনারবার গুলো চরভদ্রাসন দিয়ে ফরিদপুর বা যশোর বেনাপোল এর দিকে পাচার করা হচ্ছিল।

No comments